শুক্রবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৩ কার্তিক ১৪২৬

আবরার হত্যার প্রতিবাদে চবি শিক্ষার্থীদের প্রদীপ প্রজ্বলন

প্রকাশিতঃ বুধবার, অক্টোবর ৯, ২০১৯, ৯:২৯ অপরাহ্ণ


চবি প্রতিনিধি : বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকে কেন্দ্র করে বুয়েটসহ সারাদেশে চলমান আন্দোলনের সাথে সংহতি জানিয়ে প্রদীপ প্রজ্বলন করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) শিক্ষার্থীরা।

আজ বুধবার (৯ অক্টোবর) আন্দোরনরত বুয়েট শিক্ষার্থীরা দশ দফা দাবির সাথে সন্ধ্যায় প্রদীপ প্রজ্বলন কর্মসূচীর ঘোষণা দেয় এবং দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্ব স্ব ক্যাম্পাসে এই কর্মসূচীর পালনের আহবান জানান। সেই আহবানে সাড়া দিয়ে বুধবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে চবির কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এই কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা।

এ সময় আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটের (২০১৬-১৭) শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী তাসনীম তাবাসসুম বলেন, আমরা বুয়েট শিক্ষার্থীদের আহবানে সাড়া দিয়ে এই প্রদীপ প্রজ্বলন কর্মসূচীর আয়োজন করেছি। আমারা আবরার হত্যায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি। এই ঘটনায় জড়িত কেউ যাতে কোনরূপ ফাঁকফোকর দিয়ে বেরিয়ে শাস্তি থেকে রেহাই না পায়, আবার নিরপরাধ কেউ যাতে বলির শিকার না হয়।

এ শিক্ষার্থী আরও বলেন, দেশের বিচার ব্যবস্থায় এক ধরনের অন্ধকারের চাপ দেখা যাচ্ছে। তার প্রতিবাদস্বরূপ এই মোমবাতি প্রজ্বলন। আবরার হত্যার বিচারের পাশাপাশি আমরা সারাদেশের ক্যাম্পাসগুলোতে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতের জোর দাবি জানাচ্ছি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থনীতি বিভাগের (২০১৪-১৫) শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী সায়মা আখতার মিশু বলেন, দেশে ছাত্ররাজনীতির দরকার আছে। আর তার জন্য আমাদের ইতিহাসই সাক্ষী। তবে বর্তমানে ছাত্ররাজনীতি কলুষিত হয়ে গেছে। আমাদের সেটা দূর করতে হবে। সারাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে হবে। আমাদের বাক স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে হবে। আমরা নয় মাস যুদ্ধ করে রক্ত দিয়ে এই বাক স্বাধীনতা পেয়েছি। যা হরণ করার অধিকার কারও নেই।

এর আগে গতকাল সকালের দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের ৪র্থ বর্ষের ছাত্র খালেদ সাইফুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার চত্বরে বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে একাই আন্দোলনে নামেন। পরে ওইদিন বিকেলে নগরীর ষোলশহর রেল স্টেশানে চবি সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে একটি মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়াও চট্টগ্রাম কলেজ, আন্তর্জাতিক ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়, মহসিন কলেজ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন।

পরে আজ বুধবার সকালে চবির ছাত্রীরা আবরার হত্যার সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে আন্দোলন করে। তাছাড়া চট্টগ্রাম নগরীতে আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে চবি ছাত্রদলও মানববন্ধন করে।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার (৬ অক্টোবর) রাতে বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকসহ ১৯ জনকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা করেছেন আবরারের বাবা। ইতিমধ্যে ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাদের মধ্যে ১০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।