বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৮ আশ্বিন ১৪২৭

বিমানে বিজনেস ক্লাসবঞ্চিত মন্ত্রী বীর বাহাদুর, দুর্ব্যবহারের অভিযোগ

প্রকাশিতঃ শনিবার, সেপ্টেম্বর ৫, ২০২০, ৪:০৪ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম : শনিবার সকাল সোয়া ৯ টায় বাংলাদেশ বিমানের ০৪১২ ফ্লাইটে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার যাত্রী ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী উশৈ সিং বীর বাহাদুর।

সকাল ৯ টার আগে চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উপস্থিত হয়ে ভিআইপি লাউঞ্জে অবস্থান করছিলেন তিনি। তাঁর স্টাফরা বোর্ডিং পাশ নিতে গেলে বোর্ডিং সংশ্লিষ্টরা বীর বাহাদুরকে দিতে চান সাধারণ যাত্রীর সেবা।

এতে ঘোর আপত্তি জানান মন্ত্রী বীর বাহাদুরের স্টাফরা। বলেন, তিনি মন্ত্রী, ভিভিআইপি মর্যাদার। এরই মধ্যে স্রেফ ভিআইপি সিল মেরে ইকোনমি ক্লাসের বোর্ডিং কার্ড ধরিয়ে দেন সংশ্লিষ্টরা। এ নিয়ে রাকিব নামের এক বিমানকর্মী মন্ত্রীর স্টাফদের সাথে দুর্ব্যবহার ও বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন, এমনকি মন্ত্রীর সাথেও দুর্ব্যবহারে উদ্ধ্যত হন বলে অভিযোগ রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, টিকেটে বীর বাহাদুরের নামের আগে উশৈ শিং লেখা থাকায় বিমানকর্মীরা বুঝতে পারেননি যে তিনি পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর। এই ভ্রম থেকেই মুলত এই ভুল বোঝাবুঝির ঘটনা ঘটেছে।

প্রশ্ন হচ্ছে, জানাজানির পরও বিজনেস ক্লাসের আসন দেয়া হয়নি কেন?

এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট মহল ও সুশীল সমাজে নানা প্রশ্ন ও মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের যুগ্ম মহাসচিব মহসীন কাজী একুশে পত্রিকাকে বলেন, রাষ্ট্রায়ত্ত বিমানে রাষ্ট্রের একজন অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির (ভিভিআইপি) সাথে এমন আচরণ কাম্য নয়। ইকোনমি ক্লাসে টিকেট কাটলেও বিমানের রুলস এন্ড রেগুলেশনেই আছে ভিভিআইপি হলে অটো তিনি বিজনেস ক্লাস পাবেন, ভিভিআইপি মর্যাদায় যাত্রীসেবা পাবেন। পরিচয় জানার পরও একজন মন্ত্রীর বোর্ডিং পাসে কেবল ‘ভিআইপি’ সিল মারা, ইকোনমি ক্লাসে ঢাকা পাঠানো রীতিমতো ধৃষ্টতা।

এ বিষয়ে কথা বলতে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী উশৈ শিং বীর বাহাদুরের সাথে অসংখ্যবার ফোন করেও কথা বলা যায়নি।

মন্ত্রীর সহকারী একান্ত সচিব সাদেক হোসেন চৌধুরী বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করে একুশে পত্রিকাকে বলেন, ভুল বোঝাবুঝির অবসান হয়েছে। আমরা চাইছি না বিষয়টি আর বড় হোক।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপ-মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) তাহেরা খন্দকার একুশে পত্রিকাকে বলেন, অভিযোগটি আমি শুনিনি, এখন জানলাম। অভিযোগ আসলে নিয়ম অনুযায়ী তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয় ম্যানেজমেন্ট, এক্ষেত্রেও সেটাই করা হবে।