বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮ আশ্বিন ১৪২৮

জয়রথ ধরে রাখার লক্ষ্যে আজ নামবে টাইগাররা

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২১, ২:২৮ অপরাহ্ণ


ঢাকা : নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে দুর্দান্ত শুরু পেয়েছে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে সফরকারীদের লজ্জার দিনে সাত উইকেটের বড় জয় নিয়ে সিরিজে এগিয়ে আছে মাহমুদউল্লাহ বাহিনী। আজ দ্বিতীয় ম্যাচে ধারাবাহিকতা ধরে রেখে সিরিজ জয়ের পথে আরো একধাপ এগোতে চায় টাইগাররা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় ১২তম বারের মতো মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড। ম্যাচটি দেখা যাবে সরাসরি গাজী টিভি ও টি-স্পোটর্স।

এর আগে, মিরপুরের টার্নিং আর মন্থর উইকেটের ফায়দা কাজে লাগিয়ে দারুণ জয় তুলে নেন টাইগাররা। ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের টি-টুয়েন্টি ইতিহাসে যৌথভাবে সর্বনিম্ন ৬০ রানে অলআউট করে লজ্জার রেকর্ডের স্বাদ দেয় সাকিব-মোস্তাফিজরা। ব্যাটিংয়ের শুরুতে চাপে পড়লেও মুশফিক-সাকিবের দৃঢ়তায় ৭ উইকেটের জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ। এটাই ছিল কিউইদের বিপক্ষে এই সংস্করণে টাইগারদের প্রথম জয়।

মিরপুরের স্লো ও টার্নিং উইকেট বাংলাদেশের স্পিনার এবং পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ছিলেন দুর্দান্ত। আজও টাইগার অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ তাদের কাজে লাগিয়ে এগিয়ে থাকতে চাইবে। গত মাসে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে ৪-১ ব্যবধানে হারানোর পরিকল্পনা অনুসরণ করবে টিম টাইগার।

এর আগে, দুর্দান্ত জয়ের পরও ব্যাটিং নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছিলেন ম্যাচসেরা সাকিব আল হাসান। তিনি বলেন, ‘সিরিজের প্রথম ম্যাচে জয়ের অনুভূতি দারুণ। কারণ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সংক্ষিপ্ত ভার্সনে আমরা আগে কখনো জয় পাইনি। এই জয় আমাদের আত্মবিশ্বাসী করছে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে আমরা ভালো বল করেছি এবং নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। তবে আমাদের ব্যাটিং প্রত্যাশানুযায়ী হয়নি। ব্যাটিংয়ের জন্য কন্ডিশন উপযোগি নয়।’

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে আর মাত্র ৪ উইকেট পেলেই আন্তর্জাতিক টি-টুয়েন্টি ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হবেন সাকিব। শ্রীলংকার লাসিথ মালিঙ্গার ১০৭ উইকেটকে টপকে যাবেন তিনি। এছাড়া বিশ্ব ক্রিকেটের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ১২ হাজার রানের পাশাপাশি ছয়শো উইকেট শিকারের মালিক হবেন সাকিব।

তবে কঠিন বাস্তবতার পরও ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবে নিউজিল্যান্ড। কিন্তু অনভিজ্ঞ দল এবং এখানকার কন্ডিশন ও বাংলাদেশের বর্তমান পারফরমেন্সের কারণে কিউইদের জন্য তা বেশ কঠিনই বটে। কিউই অধিনায়ক টম লাথাম বলেন, ‘আমাদের শুরুটা হতাশাজনক। আমরা জানতাম, এটি কঠিন হতে চলেছে। কিন্তু প্রয়োজনীয় মুর্হুতে আমরা উইকেট হারিয়েছি।’

এদিকে গতকাল নিউজিল্যান্ডের হেড কোচ গ্লেন পোকন্যাল বলেছেন, ‘দুই দলই বোলিং ভালো করেছে। দুই দলেই ভালো স্পিনার রয়েছে। পেসাররা স্লোয়ার বলের ভালো ব্যবহার করেছে। সেদিক থেকে দুই দলের বোলিংকে কাছাকাছিই মনে হয়েছে। এটাই এখন চ্যালেঞ্জ, কীভাবে আমরা ১০০ রানে যেতে পারি। আমার মনে হয় আমরা পারব।’

নিউজিল্যান্ডের বর্তমান দলটি যদিও ততটা অভিজ্ঞ নয় তবুও তরুণ এই দল হুমকিও হতে পারে। তবে ঘরের মাঠে বাংলাদেশকে হারানো ততটা সহজও নয়। আর নিজেদের শেষ দশ ম্যাচের মধ্যে সাতটিতেই জিতেছে বাংলাদেশ। এবার সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেই লিড নিয়ে রাখতে চাইবে মাহমুদউল্লাহ বাহিনী।