সোমবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

জিপারজনিত দুর্ঘটনা ও হুমায়ূন আহমেদ

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৬, ২০২১, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ণ

শান্তনু চৌধুরী : মূলত হালকা রঙ্গ রসিকতা বা মজার মজার তথ্য দেয়ার কলাম, তবে মাঝে মাঝে এটিও বেশ সিরিয়াস হয়ে যায়। এবার চেষ্টা করবো হালকা বিষয় নিয়ে কথা বলতে। এমনিতে চারদিকে সিরিয়াস বিষয়ের ছড়াছড়ি হওয়াতে জীবন থেকে হাসি-আনন্দ যেন উবে গেছে।

আমার ধারণা শরৎ এর পর থেকেই মূলত আমাদের মধ্যে ভাবালুতা শুরু হয়। আবহাওয়াটা একটু হিম হিম হয়ে পড়ে। নানা ভাব এসে জন্ম নেয় মনের গহীনে। কাব্যে, গল্পে লেখায় বা আচরণে সেটা ফুটে উঠে অনেকের মাঝে।

আর কে না জানে ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে প্রকৃতি ও পরিবেশের অনেক কিছুই পরিবর্তন হয়। উত্তর নরওয়ের ইউনিভার্সিটি অফ টমসোর গবেষকরা বের করেছেন, ঋতু পরিবর্তনের সাথে নাকি রয়েছে মানুষের যৌন উত্তেজনার সম্পর্ক। তাদের মতে, পুরুষদের যৌন উত্তেজনা সবচেয়ে বেশি থাকে শরৎ এ।

অন্যদিকে নারীদের যৌন উত্তেজনা বেশি থাকে বসন্তে। মানুষের প্রতি মানুষের যৌনআকাঙ্খা থাকাটাই স্বাভাবিক। অনেক বিকৃত মস্তিষ্ক মানুষ নানা পশুর সাথে সঙ্গম চেষ্টা করে বলেও শোনা যায়। তাই বলে সাপ! মানে সাপের প্রতি মানুষের আগ্রহের কথা খবরে পড়েছেন, তবে? বিষাক্ত প্রজাতির সামুদ্রিক সাপ অলিড স্নেক স্কুবা ড্রাইভার দেখলেই কামড়াতে ছুটে আসে। এই ছুটে আসার পেছনে কারণ একটাই, মানুষ দেখলেই তাদের যৌন সঙ্গমের ইচ্ছা জেগে উঠে !

এবার সঙ্গম বিষয়ক আরেকটি তথ্য দেই। নাারী ক্যাঙ্গারুদের যৌনাঙ্গের সংখ্যা মূলত তিনটি। যৌন সঙ্গমের সময় খেয়াল খুশিমতো যে কোনো একটি ব্যবহার করলেও সন্তান জন্মদানের সময় তারা মাঝখানের যৌনাঙ্গটি ব্যবহার করে থাকে।

সম্প্রতি বিয়ে করেছেন নোবেল বিজয়ী মালালা ইউসুফজাই। তবে তার বিয়ের আলোচনার সাথে সাথে বিয়ে নিয়ে তার আগে-পরের বক্তব্যও সমানভাবে আলোচনায়। ২০১৪ সালে ১৭ বছর বয়সে বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ ব্যক্তি হিসেবে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পান মালালা ইউসুফজাই। তালেবান জঙ্গীরা ২০১২ সালে মালালাকে স্কুল থেকে ফেরার পথে মাথায় গুলি করে হত্যার চেষ্টা চালায়। ওই ঘটনায় তাকে বিশ্বজোড়া পরিচিতি এনে দেয়। এক টুইটবার্তায় মালালা তার সঙ্গী আসের মালিককে ইসলামী রীতিতে বিয়ের কথা জানান। এর আগে বিয়ে নিয়ে দ্বিধা প্রকাশ করতে দেখা গিয়েছিল তাকে। জুলাই মাসে ‘ভোগ’ সাময়িকীকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মালালা বলেছিলেন, ‘আমি এখনো বুঝি না মানুষকে কেন বিয়ে করতে হবে। আপনি যদি আপনার জীবনে একজন ব্যক্তিকে চান, তাহলে কেন কাগজে সই করে সেটা করতে হবে। কেন স্রেফ একজন আরেকজনের সঙ্গী হতে পারবো না?’

এবার কিছু মজার তথ্য দেই। ১১ ইঞ্চি লম্বা পুরুষাঙ্গের হদিশ মিলেছে। পাথরে গড়া হলেও নিখুঁত। বীর্য বেরিয়ে আসে যে নালীগুলি ধরে, সেগুলিও নিখুঁতভাবেই ফুটে উঠেছে প্রায় ১ ফুটের পুরুষাঙ্গে। উত্তর ইয়র্কশায়ারের ক্যাটেরিকে খননকাজের সময় সেই পুরুষাঙ্গের হদিশ মিলেছে। প্রত্নতাত্ত্বিকরা জানিয়েছেন, ব্রিটেনে রোমান সম্রাটদের শাসনকালের একেবারে গোড়ার দিকে পাথর দিয়ে বানানো হয়েছিল এই পুরুষাঙ্গ। ইংল্যান্ডের জাতীয় সড়ক পরিবহন মন্ত্রক এবং একটি সংস্থা ২০১৩ সাল থেকেই খননকাজ চালাচ্ছে উত্তর ইয়র্কশায়ারের ওই এলাকায়। শুধুই পাথরে বানানো বিশাল পুরুষাঙ্গ নয়, ২০০০ বছরের পুরোনো পিস্তাচিও বাদামেরও হদিশ মিলেছে।

ছেলেবেলায় প্যান্টের জিপারে পুরুষাঙ্গ আটকে যাইনি এমন পুরুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। যুক্তরাষ্ট্রে প্রাপ্তবয়স্কদের ভেতর লিঙ্গের আঘাতজনিত সমস্যার সবচেয়ে বড় কারণ ‘জিপার’। ২০০২ থেকে ২০১২ সালের ভেতর ১৭ হাজারের বেশি আমেরিকান পুরুষ বিশেষ সমস্যার কারণে হাসপাতালের ইমারজেন্সি রুমে চিকিৎসা নিতে এসেছেন। এবার আরেকটি মজার কাণ্ড। লিঙ্গে চিড়! তাও আবার লম্বালম্বি বা উল্লম্বভাবে। বিশ্বে এই প্রথম এমন কোনও ঘটনা ঘটল চিকিৎসা জগতের ইতিহাসে। যার শিকার ব্রিটেনের এক ব্যক্তি। যদিও ভাঙার সময় তিনি কোনও আওয়াজ শুনতে পাননি। কারণ তিনি যৌনমিলনে ব্যস্ত ছিলেন। পরে ধীরে ধীরে তার সক্ষমতা কমতে থাকায় চিকিৎসকের কাছে যান তিনি। তখনই বিষয়টি সামনে আসে। ঘটনাটি উল্লেখ করা হয়েছে ব্রিটিশ মেডিক্যাল জার্নালে।

বিজ্ঞানের ব্যাখ্যা অনুযায়ী, লিঙ্গে কোনও হাড় থাকে না। কিন্তু তা সত্ত্বেও লিঙ্গে ভাঙন সম্ভব। ‘ইরেক্টাইল টিস্যু’গুলি রক্ষা করার জন্য যে প্রতিরোধমূলক স্তর থাকে, তা কোনও অস্বাভাবিক রকমের মিলন ভঙ্গিমায় ক্ষতিগ্রস্ত হলে এমনটা সম্ভব। ‘ইরেক্টাইল টিস্যু’ লিঙ্গে রক্ত সঞ্চালনে সাহায্য করে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এর আগে বিশ্বে যে সমস্ত ‘পেনাইল ফ্যাকচার’-এর ঘটনা ঘটেছে, সবই ‘হরাইজেন্টাল’ বা আনুভূমিক। আনুভূমিক বা আড়াআড়িভাবে ফ্যাকচার হলে একটা শব্দ শোনা যায়। এক্ষেত্রে সেই শব্দও শোনা যায়নি।

দ্বিতীয়ত, আড়াআড়ি ফ্যাকচার হলে তার প্রায় পরে পরেই যৌন সক্ষমতা কমে যায়। কিন্তু এই ঘটনায় তা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছিল। পাশাপাশি, আঘাত লাগার পর ওই ব্যক্তির লিঙ্গ ফুলেও ওঠে। পরে এমআরআই করে দেখা যায়, তার লিঙ্গের ডানদিকে প্রায় তিন সেন্টিমিটার ‘লম্বালম্বি চিড়’ ধরেছে বা ছিঁড়ে গিয়েছে। অবশ্য চিকিৎসার পর ছ’মাসের মধ্যে তিনি আগের মতোই স্বাভাবিক হয়ে উঠেছেন বলে কেস স্টাডিতে জানানো হয়েছে।

ইউরোলজিস্টরা জানিয়েছেন, ‘পেনাইল ফ্যাকচার এর ৮৮ ভাগই ঘটে যৌন মিলনের সময়। এছাড়াও হস্তমৈথুন, ঘুমের অস্বাভাবিক ভঙ্গি এবং তাকান্দেনের (জোর করে লিঙ্গ বাঁকানো) ফলে এমন ঘটতে পারে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলিতে আগে তাকান্দেনের প্রথা ছিল। প্যান্টের জিপার নিয়ে জনপ্রিয় লেখক হুমায়ূন আহমেদের একটি ঘটনা দিয়ে লেখা শেষ করবো তাঁর বয়ানে।

‘আমার প্রথম স্কুলে যাওয়া উপলক্ষে একটা নতুন খাকি প্যান্ট কিনে দেয়া হলো। সেই প্যান্টের কোনো জিপার নেই, সারাক্ষণ হাঁ হয়ে থাকে। অবশ্য তা নিয়ে খুব একটা উদ্বিগ্ন হলাম না। নতুন প্যান্ট পরছি, এই আনন্দেই আমি আত্মহারা। মেজো চাচা আমাকে কিশোরীমোহন পাঠশালায় ভর্তি করিয়ে দিয়ে এলেন এবং হেডমাস্টার সাহেবকে বললেন, চোখে চোখে রাখতে হবে। বড়ই দুষ্ট। আমি অতি সুবোধ বালকের মত ক্লাসে গিয়ে বসলাম। মেঝেতে পাটি পাতা। সেই পাটির উপর বসে পড়াশোনা। মেয়েরা বসে প্রথম দিকে, পেছনে ছেলেরা। আমি খানিকক্ষণ বিচার বিবেচনা করে সবচেয়ে রূপবতী বালিকার পাশে ঠেলেঠুলে জায়গা করে বসে পড়লাম। রূপবতী বালিকা অত্যন্ত হৃদয়হীন ভঙ্গিতে সিলেটি ভাষায় বলল, এই তোর প্যান্টের ভেতরের সবকিছু দেখা যায়। ক্লাসের সব ক’টা ছেলেমেয়ে একসঙ্গে হেসে উঠল। সবচেয়ে উচ্চস্বরে যে ছেলেটি হেসেছে, তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়লাম। হাতের কনুইয়ের প্রবল আঘাতে রক্তারক্তি ঘটে গেল। দেখা গেল ছেলেটির সামনের একটি দাঁত ভেঙে গেছে। হেডমাস্টার সাহেব আমাকে কান ধরে সারাক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকার নির্দেশ দিলেন। ছাত্রছাত্রীদের উপদেশ দিলেন, এ মহাগু-া, তোমরা সাবধানে থাকবে। খুব সাবধান। পুলিশের ছেলে গু-া হওয়াই স্বাভাবিক। ক্লাস ওয়ান বারোটার মধ্যে ছুটি হয়ে যায়। এ দুই ঘণ্টা আমি কান ধরে দাঁড়িয়ে থাকলাম’।

শান্তনু চৌধুরী সাংবাদিক ও সাহিত্যিক