বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শুটিং ফেলে চলে যাওয়ার কারণ জানালেন সায়ন্তিকা

প্রকাশিতঃ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ৪:০৭ অপরাহ্ন

বিনোদন ডেস্ক : প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে নির্মিত একটি ছবির কাজে হাত দিয়েছিলেন ঢালিউড অভিনেত্রী সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘ছায়াবাজ’ নামের এই ছবিটি প্রযোজনা করছেন মনিরুল ইসলাম। এই ছবিতে অভিনেতা জায়েদ খানের সঙ্গে জুটি বাঁধেন সায়ন্তিকা।

অভিযোগ উঠেছে এই ছবির শুটিং সেট থেকে তিনি কলকাতা চলে গেছেন। কিন্তু নায়িকা বলছেন অন্য কথা। তিনি ভারতের একটি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তার সঙ্গে নাকি সঠিক ব্যবহার করেননি ছবির নৃত্য পরিচালক মাইকেল। ছবিটি পরিচালনার দায়িত্বে তাজু কামরুল। আসলে ঘটেছে কী?

ভারতীয় গণমাধ্যমকে সায়ন্তিকা দাবি করছেন, ‘ছায়াবাজ’ ছবির নৃত্যপরিচালক মাইকেল তাকে হয়রানি করেছে। এ নিয়ে তার ভাষ্য, ‘প্রথমে অন্য মাস্টারজি এসেছিলেন নাচের দৃশ্য শুটিংয়ের জন্য। কিন্তু সেখানেও টাকাপয়সা নিয়ে সমস্যার জন্য তিনি চলে যান। তার পর মাইকেল নামক বাচ্চা ছেলেটি আসে।’

সায়ন্তিকা বলেন, ‘আমি এক জন পেশাদার শিল্পী। তাই এ রকম করার কথা ভাবতেই পারি না। মাইকেল আমার থেকে অনুমতি না নিয়েই হাত ধরে আমায় সরাতে গিয়েছিল। তখন আমি সকলের সামনেই বাধা দিই।’

অভিনেত্রী জানান, মূল সমস্যার নেপথ্যে রয়েছেন ছবির প্রযোজক। অভিনেত্রীর কথায়, ‘বারবার আমি প্রযোজক মনিরুলের সঙ্গে কিছু টেক‌নিক্যাল সমস্যা নিয়ে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু কোনও উত্তরই পাওয়া যায়নি। ওর কোনও পরিকল্পনা নেই। কোনও ব্যবস্থা নেই।’

সায়ন্তিকা জানান, দুই দিন ধরে কক্সবাজারে গিয়ে তিনি অপেক্ষা করেন। প্রযোজকের কোনও পরিকল্পনা ছিল না। অভিনেত্রীর ভাষ্য, ‘হঠাৎই বলা হল, নাকি নাচের দৃশ্যের শুটিং করা হবে! বারবার যোগাযোগের চেষ্টা করার পরেও যখন মনিরুল উত্তর দেননি, তখন বলেছিলাম, আমি এই ভাবে কাজ করব না মাইকেলের সঙ্গে।’

সায়ন্তিকার দাবি, এত কিছুর পরেও প্রযোজক নাকি জানিয়েছিলেন, মাইকেলকে নিয়েই কাজ করতে হবে।

ঢালিউডের এই চিত্রনায়িকা জানান, ছায়াবাজ ছবির কাজ তিনি শেষ করবেন না, এমনটা নয়। সায়ন্তিকা বলেন, ‘তিনি যদি সঠিক পদ্ধতিতে কাজ করেন, তা হলে আমি নিশ্চয়ই ছবিটার কাজ শেষ করব। কিন্তু তার আগে আমায় চিত্রনাট্য, শট ডিভিশন পুঙ্খানুপুঙ্খ জানাতে হবে।’

উল্লেখ্য, এই সিনেমার শুটিং সেরে কলকাতা ফেরার আগে জায়েদের সঙ্গে আরও একটি ছবি করার চুক্তি করেছেন অভিনেত্রী।