বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

বৃষ্টি আরও ২ দিন

প্রকাশিতঃ Wednesday, September 20, 2017, 2:48 pm

ঢাকা: ঝোড়ো হাওয়ায় কয়েকদিন ধরে উত্তাল বঙ্গোপসাগর। এ অবস্থা আরও দুদিন থাকতে পারে। মঙ্গলবার সকাল ছয়টা থেকে বুধবার সকাল ছয়টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় তুলনামূলক বেশি বৃষ্টি হয়েছে দেশের দক্ষিণ-পূর্ব ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি ৭৪ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে নোয়াখালীর মাইজদী কোর্টে। এ সময় রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টি হয়েছে ১৩ মিলিমিটার।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায়, উত্তর বঙ্গোপসাগর থেকে মেঘমালা আসছে দেশের উপকূলের দিকে। উত্তাল ঢেউ উঠছে দেশের নদ-নদীগুলোয়। গত রোববার থেকে এই অবস্থা রয়েছে সাগর, নদী আর আকাশে। আর এ কারণে দেশের সমুদ্রবন্দরগুলো আজ ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত এবং নৌবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

তবে আজ পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে। যদি তা-ই হয়, তাহলে বিকেলের পর ৩ নম্বর সতর্কতা সংকেত উঠিয়ে ফেলার সম্ভাবনা আছে বলে আবহাওয়া অধিদপ্তরের একজন আবহাওয়াবিদ জানিয়েছেন।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চরণশীল মেঘমালা তৈরি হচ্ছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর, উপকূলীয় এলাকা ও সমুদ্রবন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এজন্য চট্টগ্রাম, মোংলা, পায়রা ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত নৌযানগুলোকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি সাবধানে চলাচল করতে হবে।

এছাড়া দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব দিক দিয়ে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে রংপুর, দিনাজপুর, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টিসহ দমকা বা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এজন্য এসব এলাকার নৌবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে হবে।