বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১

ইমাম মোয়াজ্জিনের বেতন-ভাতার দাবি সংসদে

প্রকাশিতঃ ৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১:৫২ পূর্বাহ্ন

ঢাকা : দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে দেশের সব মসজিদের ইমাম, মুয়াজ্জিন ও খতিবদের সরকারিভাবে বেতন-ভাতা দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে। মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় সংসদে ৭১ বিধিতে ধর্মমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন পিরোজপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মহিউদ্দিন মহারাজ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি ধর্মপ্রাণ মুসলমানের কাছে মসজিদ একটি পবিত্র স্থান এবং ইমাম-মোয়াজ্জিন ও খতিবরা অত্যন্ত সম্মান ও শ্রদ্ধার পাত্র। তাঁরা শুধু জীবিকার তাগিদেই দায়িত্ব পালন করেন না, দ্বিন ইসলামের পবিত্র দায়িত্ব মনে করেন।

দেশের তিন লক্ষাধিক মসজিদ রয়েছে জানিয়ে মহিউদ্দিন মহারাজ বলেন, বাংলাদেশের আলেমদের বিরাট অংশ মসজিদে ইমাম, মোয়াজ্জিম ও খতিবের মতো সম্মানজনক পেশার সাথে সম্পৃক্ত। কিন্তু সরকারিভাবে তাঁদের কোনো সম্মানী বা বেতন না থাকায় স্থানীয়ভাবে সংগৃহীত সামান্য সম্মানী সুযোগ-সুবিধা নিয়ে তাঁদের জীবন ধারণ করতে হচ্ছে। এতে তাঁরা প্রতিনিয়ত অর্থনৈতিক ও সামাজিক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। দেশে জীবনযাত্রার মান বৃদ্ধির সাথে সাথে ব্যাপক হারে বেড়েছে দ্রব্যমূল্য।

জীবনযাত্রার ব্যয় বাড়লেও সরকারিভাবে তাঁদের জন্য কোনো বেতর-ভাতা ও সম্মানীর ব্যবস্থা নেই। স্থানীয়ভাবে প্রদানকৃত সম্মানীর পরিমাণও একেবারে সামান্য।

তিনি আরো বলেন, ১এ দেশের বেশির ভাগ মসিজদ পরিচালনার জন্য কোনো সুনির্দিষ্ট নীতিমালা না থাকায় মসজিদসমূহ অনেক ক্ষেত্রেই পরিচালিত হচ্ছে পরিচালনা কমিটির খেয়াল-খুশিমতো। আমাদের দেশের বেশির ভাগ মসজিদ কমিটি মসজিদের অবকাঠামোগত উন্নয়নকে যতটা গুরুত্ব দেয়, ইমাম-মোয়াজ্জিনের বেতনের বিষয়ে ঠিক ততটাই উদাসীন।

এমন বাস্তবাতায় দেশের সকল ইমাম-মোয়জ্জিম ও খতিবকে একটা সম্মানজসক সম্মানী প্রদানের সুব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।’