শুক্রবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

১১১ বছর পূর্তি : সাজছে স্কুল, আসছেন নচিকেতা

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৫, ২০১৮, ৮:১৩ পূর্বাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রজন্ম থেকে প্রজন্মের মেলবন্ধন এবং স্কুলজীবনের স্মৃতিময় দিনগুলো ফিরে পেতে চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের পুনর্মিলনী উৎসব আগামী ৬-৭ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিয়ে গতকাল বুধবার (৪ এপ্রিল) নগরীর এক রেস্তোরাঁয় স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র পরিষদ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

এদিকে উক্ত স্কুলের ১১১ বছরপূর্তি উৎসব ঘিরে স্কুলের আশপাশকেও সাজানো হয়েছে বর্ণাঢ্যভাবে। জানালেন পরিষদ সভাপতি ও চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব সভাপতি কলিম সরওয়ার।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, এ স্কুল থেকে যেসব মেধাবী বিকশিত হয়েছে তারা আমাদের গৌরব। দেশ-বিদেশে অবস’ান করে কীর্তিমান এসব প্রাক্তন ছাত্র দেশের ভাবমূর্তি উজ্জল করেছেন। আমরা সেই গৌরবের অংশীদার হয়ে মিলনের মহোৎসবে মেতে উঠতে চাই আগামী ৬ ও ৭ এপ্রিল।

প্রথমবারের মতো বড় পরিসরে অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পূর্তি দিবস পালন করতে যাচ্ছে চট্টগ্রাম সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীরা। নগরের জিইসি কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত দুইদিনব্যাপী এ অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করবেন ভারতের জনপ্রিয় শিল্পী নচিকেতা। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করবেন প্রবাসীকল্যাণ ও কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি। সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান পরিষদ সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রফিকুল আলম চৌধুরী, অ্যাডভোকেট নোমান চৌধুরী, একরাম হোসেন, কাসেম চৌধুরী, সৈয়দ কামরুল হাবীব, দস্তগীর আলম, নিশান ইলাহী। এ মিলনমেলায় বর্তমান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকসহ তিন হাজারেরও অধিক মানুষের সমাগম হবে বলে জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মুজিবুর রহমান জানান, ৬ এপ্রিল শুক্রবার সকাল ৯টায় জাতীয় পতাকা ও পরিষদের পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দুইদিনব্যাপী অনুষ্ঠানের যাত্রা শুরু হবে। সকাল ১০টায় ‘পরিবেশ বাঁচাও কর্ণফুলী বাঁচাও’ স্লোগানে একটি র্যালি বের করা হবে। র্যালির উদ্বোধন করবেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন প্রবাসীকল্যাণ ও কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি। এছাড়াও দৈনিক আজাদী সম্পাদক এমএ মালেকসহ অন্যান্য অতিথিরাও এতে উপস্থিত থাকবেন।

প্রথমদিন দুপুরে মুক্তিযোদ্ধা ও গুণিজন সংবর্ধনা, শিক্ষকদের সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদানসহ নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। সন্ধ্যা থেকে শুরু হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে গান পরিবেশন করবে জনপ্রিয় ব্যান্ড অর্থহীন ও ফিডব্যাক।

দ্বিতীয় দিন শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে অনুষ্ঠান শুরু হবে। এর মধ্যে রয়েছে পরিষদের বিবরণ পাঠ, প্রাক্তন শিক্ষক ও ছাত্রদের স্মৃতিচারণ, যাদু ও কৌতুক এবং ক্রীড়া প্রতিযোগিতা। বিকেল সাড়ে ৪টা থেকে শুরু হবে চট্টগ্রামের আঞ্চলিক গানের শিল্পীদের অংশগ্রহণে সংগীতানুষ্ঠান। এতে গান পরিবেশন করবেন প্রেমসুন্দর বৈষ্ণব, শাকিলা জাহান, রূপা ও নীলিমা। সন্ধ্যায় অংশগ্রহণকারী অতিথি শিল্পী নচিকেতাকে ক্রেস্ট প্রদান করা হবে। রাত সাড়ে ৮টায় নচিকেতা গান পরিবেশন করবেন। রাতে স্পন্সরদের মধ্যে ক্রেস্ট বিতরণ, র্যাফেল ড্র এবং ধন্যবাদ প্রদানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হবে।

অনুষ্ঠানে ২ জন দরিদ্র মেধাবী ছাত্রকে এককালীন শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হবে। সেইসাথে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে একটি ফান্ড গঠন করে দরিদ্র ও অসুস’ ছাত্র এবং শিক্ষকদের আর্থিক সাহায্যসহ স্কুলের জন্য প্রয়োজনীয় আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে বলে জানান মুজিবুর রহমান।

দুইদিনব্যাপী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বিদেশ থেকে বেশ কিছু প্রাক্তন শিক্ষার্থী আসছেন বলেও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে

একুশে/এএ