বুধবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, ১৩ মাঘ ১৪২৮

জলবায়ু পরিবর্তনে হুমকির সম্মুখীন বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, নভেম্বর ১০, ২০১৫, ৬:৫৫ অপরাহ্ণ

::আজাদ তালুকদার ::

Climate-1জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে হুমকির সম্মুখীন ভারতের সাড়ে পাঁচ কোটি মিলিয়ন উপকূলীয় এলাকা। সমুদ্রপৃষ্ঠের পানি বেড়ে যেয়ে বিলীন হয়ে যেতে পারে প্রায় কয়েক লক্ষাধিক মানুষের বাড়িঘর। আর সেসময় বিশ্ব তাপমাত্রা চার ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বেসরকারি সাংবাদিক সংস্থার একটি রিপোর্টে জলবায়ু পরিবর্তনের এই সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।

রিপোর্টিতে আরো বলা হয় তাপমাত্রা চার ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে বৃদ্ধি পেলে ক্ষতিগ্রস্থ হবে ভারতের পার্শ্ববর্তী দেশ বাংলাদেশ ও চীন। চীনের প্রায় ১৪৫ মিলিয়ন মানুষের জীবন সরাসহুমকির সম্মূখীন হবে। প্যারিসে জাতিসংঘের জলবায়ু সম্মেলনে এর প্রতিকার নিয়ে আলোচনা করা হবে। সম্মেলন শুরু হবে নভেম্বর ৩০ থেকে এবং চলবে ডিসেম্বর ১১ তারিখ পর্যকন্ত। সম্মেলনের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হবে কিভাবে বিশ্ব তাপমাত্রাকে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্য্ন্ত কমিয়ে আনা যায়।

এদিকে চার ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা বৃদ্ধি সমুদ্র পৃষ্ঠের পানি বেড়ে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট বলে মনে করেন গবেষকরা। আর এতে করে ডুবে যেতে পারে চীনের সাংহাই, ভারতের মুম্বাই ও কলকাতা, ভিয়েতনামের হ্যানয় এমনকি বাদ পরবে না বাংলাদেশের খুলনাও।

রিপোর্টে আরো বলা হয়েছে, বিশেষজ্ঞরা মনে করেন যদি বিশ্ব তাপমাত্রাকে দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসে কমিয়ে আনা যায় তাহলে এই ভায়বহতার হাত থেকে বিশ্ববাসীকে উদ্ধার করা সম্ভব। যদি বিশ্বতাপমাত্রা দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসে বেড়ে যায় তাহলে ভারতে দুই কোটি মানুষ সমুদ্রপৃষ্ঠে ডুবে যাবে যেখানে চীনে ধারণা করা হচ্ছে সাড়ে ছয় কোটি মানুষ।

আর এর সবকিছুর পেছনে দায়ী করা হচ্ছে কার্বন নির্গমনকে। কার্বন নির্গমনের ফলে বিশ্ব উষ্ণতা ভয়াবহ আকার ধারণ করবে এবং তাপমাত্রা চার ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বেড়ে যাবে। তবে ঝুঁকিপূর্ন দেশগুলো হিসেবে ভারত, বাংলাদেশ, চীন ভিয়েতনাম এবং ইন্দোনেশিয়ার মত দেশগুলোর নাম বেশ উল্লেখযোগ্য।