বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় তারেকের সাজা: ফখরুল

প্রকাশিতঃ Thursday, July 21, 2016, 2:56 pm

Fakrulঢাকা: দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের দায়ের করা অর্থপাচার মামলায় উচ্চ আদালতে সাজা দেয়ার ঘটনাকে ‘সরকারের প্রতিহিংসামূলক আচরণ’ আখ্যা দিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ফখরুল এ মন্তব্য করেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বর্তমান ভোটারবিহীন সরকার বেগম খালেদা জিয়া, তারেক রহমান এবং বিএনপি নেতাকর্মীসহ জাতীয়তাবাদী শক্তিকে নির্মূল করার জন্য রাষ্ট্রের সব প্রতিষ্ঠানকে করায়ত্ত করে যে নির্দয় নীলনকশা বাস্তবায়ন করছে তা নজিরবিহীন। বিশ্বের কোথাও এই নির্মমতার দৃষ্টান্ত পাওয়া যাবে না। মুদ্রা পাচারের যে মামলায় জজ আদালত তারেক রহমানকে খালাসের রায় দিয়েছিলেন সেটির বিরুদ্ধে দুদক হীন উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবেই উচ্চতর আদালতে আপিল করেছিল।’

তিনি বলেন, ‘দুদক দুরভিসন্ধিমূলক আপিলটি যে বর্তমান ভোটারবিহীন সরকারের নির্দেশেই করেছে তা আজ সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত। মুদ্রা পাচার মামলাটিতে কোনো সঠিক ম্যাটেরিয়াল ছিল না এবং সাক্ষী প্রমাণে তার বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিংয়ের কোনো সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়নি বলেই জজ আদালত মামলাটি থেকে তাকে খালাস দিয়েছিলেন। সুতরাং জজ আদালত কর্তৃক তারেক রহমানের খালাস পাওয়া এই সরকারের গা জ্বালার কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সরকার তার প্রতিহিংসা মেটাতে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে দুদককে দিয়ে মামলাটি নিয়ে কারসাজি অব্যাহত রাখে এবং দুদক সরকারের সন্তষ্টি বিধানের জন্য তারেক রহমানকে শাস্তি দিতে উঠেপড়ে লাগে। যার কারণে জজ আদালতের সেই খালাসের রায় প্রদানকারী বিচারক সরকারের রোষানলে পড়ে প্রাণ বাঁচাতে দেশত্যাগে বাধ্য হন।’

তারেক রহমানকে সাজা দিতে সরকার ও দুদকের দুরভিসন্ধিমূলক পরিকল্পনার ঘটনায় জনগণের তীব্র প্রতিক্রিয়ার আশঙ্কা থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে দলের সহ-দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপুসহ ১৩ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে বলে অভিযোগ করেন ফখরুল।

নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের নিন্দা জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সরকার তার নিজের অবৈধ সত্তা ঢাকতে একের পর এক ইস্যু তৈরি করে জনগণের মন ও ভাবনাকে বিভ্রান্ত করার অপকৌশল এঁটে যাচ্ছে। দেশ আজ নিবিড় অরাজকতায় আচ্ছন্ন হয়ে আছে। দেশের জনপদ-মাঠ-ঘাট-প্রান্তরে এখন শুধু রক্তের দাগ ছাড়া আর কিছু নেই। সরকারের কাছ থেকে দেশবাসী শুধুই হুমকি-ধামকি, মিথ্যাচার ও কথামালার ফানুস ছাড়া আর কিছুই পায়নি। সব ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়ে সরকার দিশেহারা হয়ে শুধু দেশের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল বিএনপিকে পর্যুদস্ত করতে উঠেপড়ে লেগেছে।’

মির্জা ফখরুল অবিলম্বে সারাদেশে আটককৃত নেতাকর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান।