বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

চসিকের শিক্ষা খাতে ভর্তুকি ৪২ কোটি টাকা

প্রকাশিতঃ Thursday, September 1, 2016, 7:44 pm

চট্টগ্রাম: শিক্ষা ব্যবস্থাকে যুগোপযোগী ও গতিশীল করার লক্ষ্যে প্রতি বছর ৪২ কোটি টাকা ভর্তুকি দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের (চসিক) শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনা ও স্বাস্থ্য রক্ষা স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি নাজমুল হক ডিউক।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় নগর ভবনের কে বি আবদুস ছাত্তার মিলনায়তনে কমিটির এক বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

দায়িত্ব নেয়ার পর স্ট্যান্ডিং কমিটি এক বছরে যে কর্মসূচিগুলো গ্রহণ করেছে তার একটি বিবরণ তুলে ধরা হয় সংবাদ সম্মেলনে। এর মধ্যে রয়েছে- শিক্ষা বিভাগের কার্যক্রমে শৃঙ্খলা প্রতিষ্ঠা করা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা, শিক্ষা নীতিমালা প্রণয়ন করা, আর্থিক সুবিধা প্রদান ও পদোন্নতি প্রদান, সিলেকশন গ্রেড ও টাইম স্কেল বঞ্চিত শিক্ষকদের স্কেল প্রদান, অস্থায়ী শিক্ষকদের স্থায়ীকরণ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে শ্রেনিপাঠের মান উন্নীতকরণ, ধর্মীয় অনুশাসন, সামাজিক মূল্যবোধ এবং দেশাত্ববোধে উদ্বুদ্ধকরণ, খেলাধুলা, সাহিত্য-সংস্কৃতি, বিতর্ক প্রতিযোগিতা।
এতে জানানো হয়, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের আওতাভুক্ত স্কুল ও কলেজের ৪৪০ জন শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সিলেকশান গ্রেড, টাইমস্কেল ও উৎসব ভাতা প্রদান করা হয়। তাছাড়া সরকারি পে-স্কেল ঘোষণার সাথে সাথে শিক্ষা স্ট্যান্ডিং কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী স্থায়ী শিক্ষকদের স্কেল প্রদানের পাশাপাশি অস্থায়ী শিক্ষকদেরও ২৭ থেকে ৩৫ শতাংশ পর্যন্ত বেতন বৃদ্ধি করা হয়।

কমিটির গৃহীত পদক্ষেপের কারনে এইচএসসিতে ২০১৫ সালের তুলনায় ২০১৬ সালে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত কলেজসমূহে পাশের হার শতকরা ১ দশমিক ১০ ভাগ বৃদ্ধি পায়। আর এসএসসিতে স্কুলসমূহে পাশের হার শতকরা ৬ দশমিক ৮৮ ভাগ বৃদ্ধি পায়।

ইতোমধ্যে তিনটি কলেজ ও ৭ টি বিদ্যালয়ে ভবন নির্মাণের কাজ চলছে। চলতি অর্থ বছরে কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভবন নির্মানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলেও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- কমিটির সদস্য সচিব ও সিটি কর্পোরেশনের প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা নাজিয়া শিরিন, কমিটির সদস্য ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মো. হারুন উর রশিদ, ৩০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাজহারুল ইসলাম চৌধুরী, ৩৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাসান মুরাদ বিপ্লব, সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সৈয়দা কাশপিয়া নাহরিন, ৯নং সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফারহানা জাবেদ।

প্রসঙ্গত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন ৪৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়,২১টি কলেজ, একটি বিশ্ববিদ্যালয়, একটি পূর্ণাঙ্গ কম্পিউটার ইনস্টিটিউট, একটি সংগীত একাডেমী, ৬টি কিন্ডার গার্টেন, একটি করে ইংরেজি মাধ্যম স্কুল, শিক্ষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, থিয়েটার ইনস্টিটিউট ও সিটি কর্পোরেশন লাইব্রেরী ও ৪টি বয়স্ক শিক্ষা কেন্দ্র পরিচালনা করে আসছে।