২৭ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬, বুধবার

কর ও ভ্যাটের আওতা বাড়াতে হবে: এনবিআর চেয়ারম্যান

প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৪, ২০১৯, ৬:১৪ অপরাহ্ণ


চট্টগ্রাম: কর ও ভ্যাটের আওতা বাড়াতে তাগিদ দিয়েছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) দুপুরে ১২টায় চট্টগ্রাম চেম্বার আয়োজিত ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের প্রাকবাজেট মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন। ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার আয়োজিত সভায় এনবিআর চেয়ারম্যান প্রধান অতিথি ছিলেন।

মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ‘কর ও ভ্যাটের আওতা বাড়াতে হবে। গ্রামের অনেক ব্যবসায়ী করের আওতার বাইরে। ব্যবসায়ীদের অটোমেশনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। সমুদ্রবন্দর ও বিমানবন্দরে স্ক্যানিং মেশিনের ওপরও জোর দিচ্ছে সরকার।’

তিনি বলেন, দেশকে শিল্পায়নের দিকে এগিয়ে নিতে হলে দেশীয় শিল্পকে সুবিধা দিতে হবে। অতীতের মতো আসন্ন বাজেটেও দেশি শিল্পকে সুবিধা দেওয়া হলে বিনিয়োগ বাড়বে।

মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, ৪ লাখ ৬৪ হাজার কোটি টাকার চলতি বাজেট। আগামী বাজেট প্রায় ৫ লাখ কোটি টাকা। স্মল ও মিডিয়াম ইন্ডাস্ট্রি দিয়ে শিল্পায়ন শুরু হয়েছে দেশে। পাশাপাশি বৃহৎ শিল্পও হচ্ছে। দেশীয় শিল্পকে গুরুত্ব দিতে হবে। এর ফলে মানুষ দেশীয় শিল্পায়নের দিকে ধাবিত হবে। নতুন নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে এবং তরুণ উদ্যোক্তারা শিল্পের প্রতি আস্থাশীল হবে।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, অভ্যন্তরীণ সম্পদ সংগ্রহ একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, আমরা সরাসরি কোনও মেশিনারিজ বিদেশ থেকে আমদানি না করে অ্যাসেম্বলি করছি। ২০৫০ সালের দিকে গেলে আমরা বুঝতে পারবো শিল্পায়ন কতটুকু আমাদের এগিয়ে নিয়ে গেছে। তখন সেটি ফুটে উঠবে। আমরা পরনির্ভরশীলতা থেকে বেরিয়ে আসছি এবং নিজেদের অর্থায়নে কাজের চেষ্টা চালাচ্ছি।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য মাহমুদ ফিরোজ শাহ আলম, কানন কুমার রায়, মোহাম্মদ মেফতাহ উদ্দিন খান, মোহাম্মদ রেজাউল হাসান, সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া। এর আগে স্বাগত বক্তব্য দেন চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম।

স্বাগত বক্তব্যে তিনি ব্যক্তি কর সীমা সাড়ে ৩ লাখ, নারী ও ৬৫ বছরের ঊর্ধ্বে আয়কর সীমা ৪ লাখ, প্রতিবন্ধীদের পৌনে ৫ লাখ এবং যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধাদের সোয়া ৫ লাখে উন্নীত করার অনুরোধ জানান।