২৩ মে ২০১৯, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, বুধবার

পাবনায় ৬ শতাধিক চরমপন্থীর আত্মসমর্পণ

প্রকাশিতঃ মঙ্গলবার, এপ্রিল ৯, ২০১৯, ৭:৩৬ অপরাহ্ণ

পাবনা : স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে উত্তর-দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের ১৫ জেলার ৬ শতাধিক চরমপন্থী আত্মসমর্পণ করেছেন। মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) পাবনা শহীদ অ্যাডভোকেট আমিনউদ্দিন স্টেডিয়ামে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেন তারা।

নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠন পূর্ব বাংলার কমিউনিস্ট পার্টি (লাল পতাকা), পূর্ব বাংলার সর্বহারা পার্টি, নিউ বিপ্লবী কসিউনিস্ট পার্টি ও কাঁদামাটি- এই চারটি নিষিদ্ধ সংগঠনের সদস্যরা আত্মসমর্পন করেন।

আত্মসমর্পণকারীদের অনেকের বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি, বিস্ফোরক ও অস্ত্র মামলা রয়েছে। তারা পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী। সন্ত্রাসী জীবনে জড়িয়ে পরিবার, স্ত্রী-সন্তান থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন তারা। পুলিশ আর প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা সবসময় তাড়া করে ফিরত তাদের।

জেলা পুলিশ জানায়, পাবনা, ঈশ্বরদী, নাটোর, বগুড়া, নওগাঁ, জয়পুরহাট, রাজশাহী, রংপুর, কুষ্টিয়া, নড়াইল, রাজবাড়ী, যশোর, খুলনা, সাতক্ষীরা, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর জেলায় সক্রিয় বিভিন্ন চরমপন্থী দলের সদস্যরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে আত্মসমর্পণ করেন।

আত্মসমর্পণকারিরা দাবি জানিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে যে মামলা রয়েছে তা প্রত্যাহার করাসহ তাদের অর্থনৈতিকভাবে পুনর্বাসন করতে হবে। তাদের আশা, পর্যাপ্ত আইনি সহায়তা দেয়া হলে তারাও ফিরতে পারে আলোর পথে।

অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আত্মসমর্পণকারীদের আইনি সহায়তা দেয়া হবে। পাশাপাশি সামাজিকভাবে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে। যারা আত্মসমর্পণ করেছেন তাদেরকে যোগ্যতা অনুযায়ী পর্যায়ক্রমে পুনর্বাসনের বিষয়ে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে । এছাড়া, প্রত্যেকের হাতে অর্থ সহায়তার চেক তুলে দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পুলিশের আইজি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উধ্বতন কর্মকর্তারা।