রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

‘এবারের ঈদ, ডাক্তারদের ত্যাগের উৎসব’

প্রকাশিতঃ সোমবার, আগস্ট ১২, ২০১৯, ৫:৪৪ অপরাহ্ণ


হিমাদ্রী রাহা : এবারের ঈদ-উল-আযহা ডাক্তারদের ত্যাগের উৎসবে পরিণত হয়েছে। ঈদের দিনেও বাড়ি যাওয়ার আনন্দকে ত্যাগ করে কর্মব্যস্ততার মাঝে কাটিয়ে রোগীদের সাথেই ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করছেন তারা। একুশে পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে একথা জানান চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন আজিজুর রহমান সিদ্দিকী।

ঈদে ডাক্তারদের ছুটি বাতিল প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সবাই যদি বাড়ি চলে যায় তো ডেঙ্গু রোগীদের সেবা কে দেবে? সমাজ বা রাষ্ট্রে যখন সংকট তৈরী হয় তখন সবাইকেই এগিয়ে আসতে হয়। ব্যক্তিগত চাওয়া পাওয়া কিংবা ভোগ বিলাসের উর্ধ্বে উঠে মানবসেবায় নিজেকে বিলিয়ে দিতে হয়। এর মাঝেই তো স্বার্থকতা নিহিত।

তিনি আরও বলেন, একটা কথা প্রচলিত আছে, যে ডাক্তাররা ত্যাগ স্বীকার করতে পারেনা, তারা আন্তরিক না, তারা রোগীকে ভালো করে সময় দেয়না। আশাকরি এবার মানুষ বুঝবে যে ডাক্তাররাও ত্যাগ করতে পারে। আর ডাক্তারদের মধ্যেও বোধদয় হবে যে রোগীদের প্রতি যদি আরেকটু আন্তরিক, আরেকটু ত্যাগ স্বীকার করা যা তাহলে নিজেদের যেমন ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে, তেমনি জনগণও আস্থা ফিরে পাবে।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, শুধু ডাক্তার নয়, ডাক্তারদের সহযোগী হিসেবে যারা আছেন অর্থাৎ নার্সদেরও ছুটি বাতিল হয়েছে। আমার অধীনে ডাক্তার ও নার্স মিলে ৩ হাজার ২০০ কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করছেন। এছাড়াও সরকারী হাসপাতালগুলোতেও রয়েছে ২ হাজার ৫০০ ডাক্তার, নার্সের সংখ্যা আরও বেশী। বলা যায় ডাক্তার ও নার্সরা মিলে মানবসেবার মধ্য দিয়ে নিজেদের ঈদের আনন্দকে ভাগাভাগি করছেন। এটাই তো আনন্দ। এটাই তো ত্যাগ।

উল্লেখ্য, দেশে হঠাৎ করে ডেঙ্গু রোগ মহামারী আকার ধারণ করায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ৯ থেকে ১৭ আগস্ট পর্যন্ত সকল সরকারী ডাক্তারদের ছুটি বাতিল করেছে।