রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬

শিল্পকলায় বসেছে দেশপ্রেম, দেশাত্মবোধে জাগ্রত হওয়ার ’উৎসব’

প্রকাশিতঃ সোমবার, নভেম্বর ২৫, ২০১৯, ১২:১২ অপরাহ্ণ

চট্টগ্রাম : ‘একবার যেতে দে না আমায় ছোট্ট সোনার গাঁয়,’ অথবা ‘একতারা তো দেশের কথা বলরে এবার বল’ এমন দেশপ্রেম, দেশাত্মবোধের চেতনায় চট্টগ্রামের শিল্পকলা একাডেমিতে চলছে ক্ষুদে শিল্পীদের বিভাগীয় প্রতিযোগিতা।

পল্লীগীতি,  যথার্থ সুর ও মর্যাদায় জাতীয় সংগীত গাওয়ার চেষ্টার পাশাপাশি চলছে মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক গল্প, কবিতা, অঙ্কন, একক অভিনয়সহ বর্ণাঢ্য আয়োজন। যেখান থেকে সমস্বরে আওয়াজ উঠেছে, ‘এই দেশ আমার, মুক্তিযুদ্ধ আমার অহংকার, আমরাই গড়বো, এগিয়ে নিয়ে যাবো আমাদের প্রিয় দেশ বাংলাদেশকে’।

দেশাত্মবোধ গানের প্রতিযোগিতার একটি অংশ। বিচারক প্যানেলে আছেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী মৃণাল ভট্টাচার্য, বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের তালিকাভুক্ত শিল্পী অ্যাডভোকেট রেহানা বেগম রানু

তৃণমূল থেকে দেশাত্মবোধ, দেশপ্রেম জাগ্রত করার ব্যতিক্রমী এই উৎসবের আয়োজক সরকার নিজেই। উপজেলা থেকে জেলা এবং জেলা থেকে দেশাত্মবোধের কষ্টিপাথরে যাচাই করা একঝাঁক মেধাবী শিক্ষার্থী অবতীর্ণ হয়েছে বিভাগীয় পর্যায়ের এই প্রতিযোগিতায়।

ক, খ এবং গ-এই তিনগ্রুপে বিজয়ফুল তৈরি, মুক্তিযুদ্ধের গল্প রচনা, কবিতা রচনা, কবিতা আবৃত্তি, একক অভিনয়, চিত্রাঙ্কন, জাতীয় সংগীত, দেশাত্মবোধক ও জাতীয় সংগীত প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছে ২৮৪ জন প্রতিযোগী। যারা প্রত্যেকে উপজেলা ও জেলা পর্যায়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করে এখানকার প্রতিযোগিতায় অবতীর্ণ হয়েছে। প্রতিযোগিদের পাশাপাশি তাদের অভিভাবক ও ইভেন্ট সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের পদচারণায় শিল্পকলা চলছে উৎসবমুখর পরিবেশ।

প্রতিযোগিতার সমন্বয়কারী চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার (উন্নয়ন) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আবু রায়হান একুশে পত্রিকাকে জানান, প্রথমে উপজেলা ও পরে জেলা পর্যায়ে ‘ক’ গ্রুপে ১ম থেকে ৫ম শ্রেণী,  ‘খ’ গ্রুপে ৬ষ্ঠ থেকে ১০ শ্রেণী এবং ‘গ’ গ্রুপে একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা গত একমাস ধরে এসব ইভেন্টে অংশ নিয়েছে। বিভাগের ১১টি জেলা পর্যায়ে তিনগ্রুপে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় যারা হয়েছে তাদের নিয়েই আজকের এই বিভাগীয় প্রতিযোগিতা।

এখানে যারা প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হবে তাদের প্রত্যেককেই দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা দেওয়া হবে। এবং এখান থেকে প্রথম হওয়া প্রতিযোগীদের নাম জাতীয় পর্যায়ে পাঠানো হবে। সেখানে যারা প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হবে, তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে সম্মাননা গ্রহণ করবে। যোগ করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু রায়হান।

এদিকে, এ উপলক্ষে আয়োজিত বিভাগীয় সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান সোমবার দুপুর ২টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত হবে। চট্টগ্রামের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বিভাগীয় পর্যায়ের বিজীয়দের মাঝে সম্মাননা তুলে দেবেন।

একুশে/এটি