শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

দেশে ২১১ দিন পর করোনায় সর্বনিম্ন মৃত্যু

প্রকাশিতঃ শুক্রবার, অক্টোবর ৮, ২০২১, ৫:২৪ অপরাহ্ণ


ঢাকা : করোনাভাইরাসে দেশে গত এক দিনে ৭ জন মারা গেছেন, যা ২১১ দিন পর সবচেয়ে কম। এর আগে এর চেয়ে কম মৃত্যু হয়েছিল চলতি বছরের ১১ মার্চ। সেদিন ৬ জনের মৃত্যুর তথ্য জানানো হয়। এর পরদিন ১২ মার্চ ১৩ জন ও ১৩ মার্চ ১২ জন মারা গেছেন। এরপর মৃত্যুর সংখ্যা আর এত কমেনি।

এছাড়া গত এক দিনে ৬৪৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। আর এ সময়ে সুস্থ হয়েছেন ৮১৪ জন।

শুক্রবার বিকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত এক দিনে ২৩ হাজার ৩০২টি নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ২.৭৭ শতাংশ। এ পর্যন্ত মোট শনাক্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৬১ হাজার ৪৬৩ জন, যাতে শনাক্তে মোট হার ১৫.৭৫ শতাংশ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গত এক দিনে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে পুরুষ ৩ জন ও নারী ৪ জন। এ নিয়ে দেশে করোনায় মোট মৃত্যু ২৭ হাজার ৬৫৪ জনের।

এছাড়া গত এক দিনে দেশে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৮১৪ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ ১৫ লাখ ২২ হাজার ৫৯১ জন।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। আর এর ১০ দিন পর প্রথম মৃত্যুর খবর আসে। এরপর কয়েক মাস মৃত্যু ও শনাক্ত ঊর্ধ্বগতিতে থাকার পর গত বছরের শেষ দিকে এসে তা অনেকটা কমে যায়। চলতি বছরের প্রথম তিন মাস অনেকটা নিয়ন্ত্রণে ছিল করোনা পরিস্থিতি। তবে মার্চের শেষ দিক থেকে দেশে বাড়তে থাকে করোনার প্রকোপ। এটাকে বিশেষজ্ঞরা করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা বলে জানান।

গত এপ্রিল মাস থেকে বাড়তে থাকা করোনার প্রকোপ চরম আকার ধারণ করে জুলাইয়ে। এই মাসে এক দিনে সর্বোচ্চ ২৬৪ জন মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এছাড়া দিনে শনাক্তের সংখ্যাও ১৫ হাজার ছাড়ায়। তবে আগস্টের শেষ দিক থেকে করোনার প্রকোপ কমতে থাকে। সেপ্টেম্বর মাস পুরোটা জুড়েই করোনার প্রকোপ নিম্নমুখী রয়েছে।

এক সপ্তাহের বেশি সময় ধরে করোনা শনাক্তের হার পাঁচ শতাংশের নিচে রয়েছে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, টানা কয়েক সপ্তাহ শনাক্তের হার পাঁচ শতাংশের নিচে থাকলে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলা যাবে।